আজকের মধ্যে ‘ফেসবুক প্রোটেক্ট’ চালু না করলে লক হবে অ্যাকাউন্ট?এমনি একটি প্রশ্ন ঘুরপাক খাচ্ছে হাজারো ব্যবহারকারীর মধ্যে । সম্প্রতি পৃথিবীর সব চাইতে বড় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে নতুন একটি ফিচার এনেছে । এই বিশেষ ফিচারটি ফেসবুক প্রাইভেসি প্রোটেকশন নামে পরিচিত পেয়েছেন । যার নোটিফিকেশন পেয়েছেন অনেক অনেক ব্যবহারকারী । যারা ওই নোটিফিকেশন পেয়েছেন তাদের ওই নোটিফিকেশনে বলা হয়েছে, ২৮ই অক্টোবরের মধ্যে ফেসবুক প্রোটেক্ট নামে একটি ফিচার টার্ন অন বা চালু করতে হবে ।

যারা এই ফেটারটি চালু করবে না তাদের ফেসবুকের অ্যাকাউন্ট লক হয়ে যাবে। এই নোটিফিকেশন পাওয়ার পরে অনেক ব্যবহারকারীদের মধ্যে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে তা হচ্ছে ফেসবুক প্রোটেক্ট কী এবং কীভাবে এটি কাজ করে ?

ফেসবুক প্রটেক্ট কি?

এটি মূলত হ্যাকিং থেকে রক্ষা পেতে ফেসবুক একাউন্ট কে বাড়তি সুরক্ষা দেবে বলে জানান ফেসবুক কর্তৃপক্ষ । এর মধ্যেই বাংলাদেশে অনেক ব্যবহারকারী সেবাটি সচল করার জন্য নোটিফিকেশন পেয়েছেন । ফেসবুকের পক্ষ থেকে এক নোটিফিকেশনে তাদেরকে জানানো হয় যে, ২৮ কিনবা ৩০ অক্টোবরের মধ্যে ফেসবুক প্রটেক্ট চালু না করলে তাদের অ্যাকাউন্ট বন্ধ হয়ে যেতে পারে বা অ্যাকাউন্টটি লক হয়ে যেতে পারে বলে জানা যায় ।

আরও পড়ুন

পুলিশ কনস্টেবলদের জীবন সংগ্রাম

স্ত্রীর প্রেমিককে পিটিয়ে হত্যা করলেন তার স্বামী

সেই ভাইরাল মেয়ের কাশবনের ভিডিও লিংক

আর থাকছে না ফেসবুক নামে কোনো সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম

ফেসবুক কি বলছে এই সম্পর্কে?

ফেসবুক তাদের ওয়েব সাইটের মাধ্যমে জানায় বেশ কিছু অ্যাকাউন্ট এর একটু বাড়তি নিরাপত্তা দিতে তারা এই নতুন ফিচার তৈরি করেছে । এই ফিচারের নাম দেওয়া হয়েছে ফেসবুক প্রোটেক্ট ( ফেসবুক প্রোটেকশন) । এটি সাধারণত একটি অপশনাল প্রোগ্রাম যা শুধু মাত্র নির্বাচনী প্রার্থী, তাদের প্রচারণা এবং নির্বাচিত ব্যাক্তির অ্যাকাউন্ট কে বাড়তি সুরক্ষা দেবে । প্রথম দিকে শুধু মাত্র যুক্তরাষ্ট্র ও জার্মানির নির্বাচনের সময় সেই জায়গার প্রার্থীদের ফেসবুক ও ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্ট এর বাড়তি সুরক্ষা ও নিরাপত্তা দেওয়ার জন্যই এই প্রোগ্রামটি তৈরি করা হয়েছিল বলে জানান তারা । তার পরে আস্তে আস্তে এটি কানাডাতেও চালু করা হয় বলে জানা যায় ।

কিন্তু ২০২২ সালে এটি বিশ্বের অন্যান্য সব দেশের জন্য সক্রিয় করা হবে বলেও জানায় ফেসবুক । এ বিষয়ক সমস্ত আপডেটও ফেসবুকের মাধ্যমেই জানানো হবে বলে ফেসবুক এর প্রতিষ্ঠাতা এবং সিইও মার্ক জাকারবার্গ ।

ফেসবুকের ওয়েবসাইটে জানানো হয়, যারা এই ফিচারটি চালু করতে সক্ষম হবেন বা যোগ্য বলে বিবেচিত হবেন তারা ফেসবুকের মাধ্যমেই জানতে পারবেন ।

ফেসবুক প্রটেক্ট চালু করলে ব্যবহারকারীকে অ্যাকাউন্টের নিরাপত্তা জোরদার করে দেওয়া হবে । যেমন এইটার মাধ্যমে ফেসবুক অ্যাকাউন্টের টু-ফ্যাক্টর অথেনটিকেশন চালু করা । এছাড়া বড়ো কোনো পেজের অ্যাডমিন বা মডারেটর হলে পোস্ট পাবলিশের নতুন করে অনুমোদন প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে যেতে হবে । যারা অ্যাডমিন তাদের অবশ্যই একটির বেশি অ্যাকাউন্ট রাখতে পারবেন না । তাদেরকে আসল নাম ব্যবহার করতে হবে এবং টু-ফ্যাক্টর অথেনটিকেশন চালু করতে বলা হবে । পাশাপাশি তিনি কোন দেশে আছেন, তা জানাতে বলা হবে বলে জানায় ফেসবুক ।

আপনি আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্টের জন্য এই ফিচারটি চালু করেছেন তো?

Leave a Reply

Your email address will not be published.