দিনে দিনে যত প্রযুক্তি উন্নতি হচ্ছে তার সাথে সাথে বাড়ছে হ্যাকিং এর সম্ভাবনা । বর্তমানে হ্যাকাররা এতো টাই শক্তিশালী হচ্ছে যে কোনো কিছুই এখন তাদের থেকে নিরাপদ নয় । আর হ্যাকারদের সব থেকে সহজ আর সব চেয়ে সহজ পথ হচ্ছে স্মার্টফোনের মাধ্যমে ।

জানেনতো কিভাবে হ্যাকারদের থেকে স্মার্টফোন সুরক্ষিত রাখা যায়-

১. স্মার্টফোন কোম্পানি মোবাইল ফোন তৈরি করার পরেই তাদের নিজের কিছু অ্যাপ মোবাইল ফোনে ইন্সটল করে দেয় । অথচ কাজের দিক দিয়ে দেখতে গেলে আমাদের অকেনেরই ওইসব অ্যাপস কোনোদিন ব্যবহার করায় হয় নাহ । তাই সেটিংসে গিয়ে অ্যাপগুলোকে ডিসেবেল করে রাখাই ভালো।

২. মোবাইল কেনার পরেই গুগলের সব গুলো পরিষেবা চালু করে রাখুন। তাহলে আপনার মোবাইল হারালে কিংবা হ্যাক হলে আপনি জানতে পারবেন ।

৩. মাঝে মাঝেই আপনার গুগল অ্যাকাউন্ট এর পাসওয়ার্ড পরিবর্তন করুন। আপনি আপনার অ্যাকাউন্টের পাসওয়ার্ড পরিবর্তন করলে অ্যাকাউন্ট সুরক্ষিত থাকবে বেশি ।

আরও পড়ুন

ছোট মাছ খাওয়ার উপকারিতা জানেন কি?

মেথি এর উপকারি দিক

ব্যবসায় প্রতি মাসে হবে ১ লক্ষ টাকা পর্যন্ত আয়

আমেরিকার প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের বেতন কত জানেন কি?

৪. গুগল প্লে স্টোর ছাড়া অন্য যেকোনো জায়গা থেকে অ্যাপস ইনস্টল করা থেকে বিরত থাকুন। অন্য জায়গা থেকে অ্যাপস ইনস্টল না করলে আপনার মোবাইল কিংবা আপনার তথ্য চুরি হওয়ার সম্ভবনা কম থাকবে । আর অজানা সোর্স থেকে থার্ড পার্টি অ্যাপ ফোনে ঢুকলে মোবাইল হ্যাক হওয়ার সম্ভাবনা বাড়ে।

৫. যখনই কখনও কোনো নতুন অ্যাপস ইনস্টল করা হয় তখনই প্রথমে স্ক্রিনে ভেসে ওঠে একটি শর্তাবলির পেজ। অনেক সময়েই আমরা টা না দেখেই অ্যাকসেপ্ট করে দেই । যা পুরোই ঠিক না । শর্তাবলি পড়ে নিলে কিন্তু অনেক বিপদ এড়ানো সম্ভব হবে ।

৬. পুরোনো যে অ্যাপ গুলো এখন আর ব্যবহার করা হয় না তা ডিলেট করুন। এতে ফোনে ম্যালওয়্যার প্রবেশের সম্ভাবনা কমে ।

৭. যেসব অ্যাপ আপডেট করা যায় না, আবার আপনার কাজেও লাগছে না। সেসব অ্যাপগুলোও স্মার্টফোন থেকে ডিলেট করে দিতে হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.