আইসিটি বিভাগ অনুসারে দেশে প্রায় ৬৫০,০০০ সক্রিয় ফ্রিল্যান্সার রয়েছে এবং তারা আপওয়ার্ক, ফাইভার এবং ফ্রিল্যান্সার মতো ডিজিটাল প্রতিভা প্ল্যাটফর্মে কাজ করে। তাদের সম্মিলিত বার্ষিক আয় প্রায় ১০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার অনুমান করা হয়।

কিছু বিশেষজ্ঞ ভয় পেয়েছিলেন যে কোভিড -১৯ প্রাদুর্ভাবের কারণে এই বছর ফ্রিল্যান্সিং উপার্জন হ্রাস পাবে। মহামারীটি পরিবর্তে একটি ফ্রিল্যান্স বুমকে উৎসাহিত করেছে।

ফ্রিল্যান্সারদের চাহিদা বৃদ্ধি পেয়েছে কারণ দূরবর্তী কাজ নতুন স্বাভাবিক হয়ে উঠেছে। এছাড়াও, অসংখ্য বাজারে প্রবেশকারী ছাত্ররা নতুন স্নাতক – গিগ অর্থনীতিতে যোগদান করছে, যাদের অনেকেই আয়ের পরিপূরক এবং অভিজ্ঞতা অর্জনের জন্য কাজ করছে।

দুইজন ফ্রিল্যান্সার এর সফলতা

শাহেদুল হাসান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন ডিন পুরস্কারপ্রাপ্ত স্নাতক, যিনি প্রায় এক বছর ধরে ফাইভারে কাজ করছেন। তিনি ভবিষ্যতের শিক্ষকতা পেশার জন্য কাজের অভিজ্ঞতা সংগ্রহের জন্য ডেটা বিশ্লেষণ এবং গবেষণা ক্ষেত্রে জাতীয় এবং আন্তর্জাতিক অধ্যাপকদের সাথে কাজ করছেন।

মার্চ মাসে যখন মহামারী আঘাত হানে, আমি ফাইভারে দিনে প্রায় ৭-৮ ঘন্টা কাটাতে শুরু করি। এবং এখন আমি ইতিমধ্যেই বিক্রেতা স্তর ২-এ উন্নীত হয়েছি,” তিনি বলেন, তিনি আরও দুটি অনলাইন ফ্রিল্যান্সিং কোর্সও প্রস্তুত করেছেন।

শাহরিয়ার তার উৎপাদনশীলতা বাড়াতে এবং আর্থিক সংকটের সময়ে তার পরিবারকে সমর্থন করার জন্য মহামারী চলাকালীন ফ্রিল্যান্সিং শুরু করেছিলেন।
সে সেপ্টেম্বর মাসে Fiverr-এ তার অ্যাকাউন্ট খুলেছে এবং ইতিমধ্যেই বিক্রেতা স্তর ১-এ উন্নীত হওয়ার জন্য সর্বনিম্ন ইউএস ৪০০ ডলার অর্জন করেছে।

স্টেকহোল্ডারদের মতে এই বিশাল বুমের সহজতম ব্যাখ্যা হল সুবিধার লোভনীয় সেট বৃহৎ বাজার স্থান, শূন্য আর্থিক বিনিয়োগ, অপ্রচলিত কাজের সেটআপ, অপরিমেয় নমনীয়তা।

বিস্তৃত সুবিধার সাথে, ফ্রিল্যান্সিং, কিছু পরিমাণে, একটি ‘দ্রুত-ধনী-দ্রুত স্কিম’ বলে মনে হয়। তবুও, ফ্রিল্যান্সিং করা সহজ নয় এবং এটির পুরো দমে যেতে কমপক্ষে ছয় মাস সময় লাগতে পারে। লোকেরা প্রায়শই এই অপ্রচলিত সুযোগের সর্বাধিক ব্যবহার করতে ব্যর্থ হয়।

আরও পড়ুন

মেথি এর উপকারি দিক

ব্যবসায় প্রতি মাসে হবে ১ লক্ষ টাকা পর্যন্ত আয়

আমেরিকার প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের বেতন কত জানেন কি?

পুরুষের টাক পড়ার কারণ ও করণীয়

Fiverr-এ তিনটি বিক্রেতা স্তর রয়েছে এবং তৃতীয়টি শীর্ষ স্তর। শাহেদুল হাসান বর্তমানে লেভেল ২ এ আছি যার জন্য একজন বিক্রেতার ন্যূনতম ইউএস ২০০০ ডলার উপার্জন করতে হবে। আমি এক মাসের মধ্যে আমার প্রথম অর্ডার পেয়েছি এবং আমার ছাত্ররা আরও তাড়াতাড়ি অর্ডার পাচ্ছি।

শাহেদুল বিশ্বাস করেন যে একজন ফ্রিল্যান্সার একটি অসাধারণ পোর্টফোলিওর সাথে তার প্রোফাইলকে সংগঠিত করে যাতে এটি আলাদা হয়ে ওঠে এবং সম্ভাব্য ক্লায়েন্টদেরকে তার দক্ষতা, অভিজ্ঞতা এবং অর্জন সম্পর্কে অবহিত করে।

Upwork এর মত থেকে Fiverr-থেকে অর্থ উপার্জন করা সম্ভব।

আপনি যদি Fiverr থেকে টাকা ইনকাম করতে চান তাহলে সেক্ষেত্রে আপনাকে Fiverr কটি অ্যাকাউন্ট ক্রিয়েট করে আপনার দক্ষতার আলোকে একটি Gig তৈরি করতে হবে।

বায়ারকে আপনার কাজের অভিজ্ঞতা দেখিয়েও আপনি কাজ নিতে পারবেন। আপনার অভিজ্ঞতা ভালো থাকলে এবং কাজ ভালোভাবে করে দিতে পারলে বায়ার আপনাকে এক্সট্রা ডলার গিফট করবে।

তবে আপনাকে আগে বুঝতে হবে কি কি এবং কিভাবে তৈরি করবেন?

Fiverr

গিগ হলো আপনি যখন ফাইবারে কাজ করবেন আপনার দক্ষতা অনুযায়ী আপনার দক্ষতার একটি চার্ট বা একটি থামনিল ইমেজ আপলোড করতে হবে যেটা দেখে এবার বুঝবে যে আপনি এই কাজটি করেন।

তবে এত কিছু জানার পরেও আপনার হয়তো ইচ্ছে করবে যে Fiverr কিংবা UpWork থেকে ইনকাম করবো কিন্তু পেমেন্ট করবে কে?

ফাইবারে আপনি একাউন্ট করার পর আপনি আপনাকে যখন কোন বাইরে কোন কাজের অর্ডার দিবে এবং সে কাজটি আপনি করে বায়ারকে ডেলিভারি দিবেন ডেলিভারি দেয়ার পর বার যখন ফিডব্যাক দিবে সাথে সাথে আপনার একাউন্টে টাকা জমা হয়ে যাবে।

টাকাটা আসবে মূলত আপনি যার কাজ করেছেন তার অ্যাকাউন্ট থেকে ফাইবার একাউন্টে চলে আসবে, এবং ফাইবার একাউন্ট থেকে আপনার একাউন্টে আসবে এবং মাঝখানে ফাইবার অল্পকিছু কমিশন কেটে নেবে তাদের সার্ভিস চার্জ হিসেবে, এমনকি আপনার ইনকামের নিরাপত্তা হিসেবে বলতে পারেন।

তবে আপনার অনলাইন থেকে ইনকাম করতে ল্যাপটপ কিংবা কম্পিউটার থাকলেই চলবে এবং দ্রুতগতির ইন্টারনেট কানেকশন থাকতে হবে।

ফাইবারে বায়ারদের সাথে যোগাযোগ স্থাপন কিভাবে করবেন?

আপনার একটি ফাইবারের অ্যাকাউন্ট তৈরি হয়ে গেছে এবং আপনি একটি গিগও তৈরি করে ফেলেছেন। এখন শুধু অপেক্ষার পালা। যখনি বায়ার আপনাকে অর্ডার করবে তখনই আপনি তাদের কাজ করতে পারবেন।

প্রথম অবস্থায় অর্ডার পেতে মোটামুটি সময় লাগে। আর যদি ভালোভাবে খুব সুন্দর করে বুঝে শুনে একটি গিগ সাজাতে পারেন তাহলে খুব তাড়াতাড়ি রেসপন্স পাবেন আশা করি।

যখনই কোন বায়ার আপনাকে অর্ডার করবে বায়ারের সাথে যোগাযোগ স্থাপন করাটা খুবই জরুরি একটা বিষয়। আপনি যদি বাইরের সাথে কমিউনিকেশন ভালো না রাখতে পারেন তাহলে বায়ার আপনাকে কাজ দিতে আগ্রহ পোষণ করবে না। ভাইয়ের কোন কিছু জানতে চাইলে যত দ্রুত সম্ভব তাদের রেসপন্স করতে হবে। না হলে বা অন্যত্র চলে যাবে।

যেভাবে Fiverr-থেকে ইনকাম করবেন?

আপনার ফাইবারে গিগ তৈরি হওয়ার পর, দ্রুত অর্ডার পেতে কিছু কাজ করতে পারেন। সেগুলো হলো আপনার কি একটি সম্পর্কে বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া ইউটিউব বা আপনার ওয়েবসাইটে প্রকাশ করতে পারেন। আপনার প্রযেক্ট সম্পর্কে যত লোক জানবে ততই আপনার অর্ডার পাওয়ার পসিবিলিটি বেড়ে যাবে।

যেভাবে Fiverr এ আপনার প্রজেক্ট ডেলিভারী দিবেন?

যখন আপনার কাজটি শেষ হয়ে যাবে তখন বায়ারকে নক করে কাজটি জমা দেবেন। জমা হয়ে গেলে বায়ারকে বলবেন আপনাকে একটি ভালো ফিডব্যাক দিতে কেননা বায়ার

Leave a Reply

Your email address will not be published.